অতিরিক্ত প্রোটিন গ্রহণ স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর

|

দেহ গঠনের সাথে সম্পর্কিত এবং পেশী গঠনের সাথে জড়িত বেশিরভাগ লোকেরা প্রোটিন সেবন করে। তবে এই জাতীয় লোকদের জানা উচিত যে প্রোটিন পান করা স্থূলত্বের পাশাপাশি অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়ায়।

বিসিসিএর প্রভাব

সিডনির চার্লস পারকিনস সেন্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা একটি তদন্ত করেছিলেন যে, যার মাধ্যমে তারা প্রোটিন পাউডারে উপস্থিত ব্রাঞ্চড চেইন অ্যামিনো অ্যাসিড বা বিসিসিএর অত্যধিক পরিমাণ সেবন করে শরীরে এর কী প্রভাব ফেলে তা জানার চেষ্টা করছেন। বিসিসিএর পরিপূরকগুলি পাউডার আকারে পাওয়া যায় যা পানিতে মিশ্রিত হয়। তারপর কিছু সময় ঝাঁকুনি দিয়ে এটি প্রস্তুত হয় এবং সেবন করা হয়।

স্থূলতার সাথে অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি

নেচার মেটাবলিজম জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণায় জানা গেছে যে, বিসিসিএ পেশী গঠনে সহায়তা করলেও এটির অতিরিক্ত সেবন ব্যক্তির শরীরে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। এটি কেবল ওজন বাড়ায় না, অকাল মৃত্যুর ঝুঁকিও বাড়িয়ে তোলে। গবেষণায় গবেষকরা আরও জানতে পেরেছিলেন যে রক্তে বিসিসিএর মাত্রা বেশি হলে এটি সেরোটোনিনের মাত্রা হ্রাস করে। যার ফলে হরমোন এবং ঘুম কমে যায়।

অ্যামিনো অ্যাসিডের ভারসাম্য বজায় রাখা প্রয়োজন

লেখক সামান্থা সোলন এক গবেষণায় বলেছেন যে, আমাদের দেহে অ্যামিনো অ্যাসিডের ভারসাম্য বজায় রাখা প্রয়োজন। বিভিন্ন উৎস থেকে প্রোটিন সেবন করা হয় যেটা শরীরে এমিনো অ্যাসিডের ভারসাম্য বজায় রাখে। প্রোটিনের উপর নির্ভর না করে- মুরগি, মাছ, হাঁস, মটরশুটি, মসুর এবং বাদাম ইত্যাদি থেকেও আমরা প্রোটিন পেতে পারি।








Leave a reply