রিয়া চক্রবর্তী ইডির সামনে হাজির হলে গ্রেফতার হতে পারেন

|

যত দিন গড়াচ্ছে ততই জটিল হচ্ছে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু রহস্য।  মুম্বই পুলিস, বিহার পুলিস এবং ইডির পর এবার সুশান্তের মৃত্যু রহস্যের কিনাা করতে তদন্তভার তুলে দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার হাতে। সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে যাওয়ার পরই রিয়া চক্রনর্তী, ইন্দ্রজিত চক্রবর্তী, সন্ধ্যা চক্রবর্তী, সৌভিক চক্রবর্তী, স্যামুয়েল মিরান্ডা এবং আরও একজনের বিরুদ্ধে এআইআর দায়ের করে সিবিআই।  

কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা যখন সুশান্তের মৃত্যুর রহস্যের ঘেরাটোপ মুক্ত করার জন্য মাঠে নেমেছে, সেই সময় ইডির ডাকে হাজির হন সুশান্তের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা।  জানা যাচ্ছে, ইডির দফতরে হাজির হয়ে জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে হয় স্যামুয়েলকে কিন্তু সংবাদমাধ্যমের সামনে টু শব্দও করেননি তিনি। বৃহস্পতিবা প্রায় ৯ ঘণ্টা ধরে মিরান্ডাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ইডি।  কিন্তু সেখান থেকে বেরনোর পরই মুখে কুলুপ আঁটেন প্রয়াত অভিনেতার হাউজ ম্যানেজার। 

প্রসঙ্গত স্য়ামুয়েলকে নিয়োগ করে রিয়া চক্রবর্তী।  রিআর অবর্তমানে স্যামুয়েলই সুশান্তের অর্থের হিসেব রাখতেন।  সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকেই নিখোঁজ হয়ে যান স্যামুয়েল।  তাঁর কোনও খোঁজ মিলছিল না।  রিপোর্টে প্রকাশ, স্যামুয়েল যাতে সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ না খোলেন, তার নির্দেশ দেওয়া হয় তাঁকে।  মুম্বই পুলিসের তরফেই স্যামুয়েলকে মুখ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয় কি না, সে বিষয়ে শুরু হয়েছে খোঁজ। 

এদিকে স্যামুয়েলের পরও রিয়ারও শুক্রবার ইডির সামনে হাজির হওয়ার কথা।  এ বিষয়ে বিহারের ডিজিপি গুপ্তেশ্বর পান্ডে জানান, ইডির জিজ্ঞাসাবাদের সামনে হাজির হবেন না রিয়া।  ইডির সামনে হাজির হলে তাঁকে যদি গ্রেফতার করা হয়, সেই ভয়েই রিয়া সেখানে হাজির হবেন না বলে মন্তব্য করেন বিহার পুলিসের ডিজিপি। 








Leave a reply