পরিণীতি চোপড়ার এই হাল!

|

ব্যাংকার হওয়ার স্বপ্ন ছিল তার। উঠেছে এসেছেন ফিল্ম ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে। কাজ করেছেন রানি মুখার্জির জনসংযোগ কর্মকর্তা হিসেবে। তারপর পা রাখেন বলিউডে। কিন্তু অন্য নায়িকাদের মতো সুশ্রী না হওয়ায় ঝিমিয়ে গেছে তার ক্যারিয়ার। বলছি, বলিউড অভিনেত্রী পরিণীতি চোপড়ার কথা।

হরিয়ানাল অম্বলায় জন্ম নেওয়া পরিণীতির নায়িকা হওয়ার ইচ্ছা ছোটবেলা ছিল না। ১৭ বছর বয়সে উচ্চশিক্ষার জন্য চলে যান ইংল্যান্ডে। ফিন্যান্স এবং ইকোনমিকস বিভাগে স্নাতকোত্তর করেন।

বড়বোন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া হাত ধরে বলিউডের স্টুডিওতে প্রবেশ পরিণীতির। যশ রাজ স্টুডিও পাবলিক রিলেশন টিমের সঙ্গে কাজ শুরু করেন ২০০৯ সালে। রানি মুখার্জি, রণবীর সিংয়ের মতো তারকাদের সাক্ষাৎকারের ব্যবস্থা করার দায়িত্ব ছিল তার কাঁধে। এছাড়া যশ রাজ ফিল্মের ‘ব্যান্ড বাজা বরাত’ সিনেমার পুরো প্রমোশনের দায়িত্ব ছিল তারই ওপর। এ সিনোমর প্রমোশন করতে গিয়েই অভিনয়ে প্রতি ভালোবাসা জন্ম নেয়।

পরিচালক মণীশ শর্মার মাধ্যমে আদিত্য চোপড়ার সঙ্গে পরিচয়। পরে আদিত্য চোপড়ার তিনটি সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হন তিনি। পরিণীতির প্রথম সিনেমা ‘লেডিস ভার্সস ভিকি বহল’। ২০১১ সালে মুক্তি পাওয়া এ সিনেমাটি খুব বেশি ব্যবসা করতে না পারলেও নাম কামান পরিণীতি। তার দ্বিতীয় সিনেমায় জায়গা করে নেন দর্শক হৃদয়ে।

পরপর হিট সিনেমা উপহার দেওয়ার পরও বিতর্ক শুরু হয় পরিণীতিকে নিয়ে। অন্য নায়িকাদের তুলনা মোটা হওয়ায় ফিল্ম পলিটিক্সের শিকার হন এ অভিনেত্রী। ২০১৪ সালে হঠাৎ করে ধস নামে তার ক্যারিয়ারে। ২০১৭ সালে কামব্যাক করেও জায়গা করতে পারেননি বলিউডে। তাই অভিনয়ে পারদর্শী হয়েও মাত্র ১০ বছরে ঝিমিয়ে গেছে পরিণীতি চোপড়ার ফিল্ম ক্যারিয়ার।








Leave a reply