আয় মাত্র ১৪ লাখ, অথচ মুম্বইয়ের অভিজাত এলাকায় কোটি টাকার সম্পত্তির মালকিন রিয়া!

|

সুশান্তের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে বেশ কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন রিয়া, সুশান্তের বাবার এমন অভিযোগের পরই রিয়াকে পাঠানো হয় ইডির তরফে। ইডির তরউে আরও জানানো হয়েছে, সুশান্ত সিং রাজপুতের মোট চারটি ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট ছিল। তাঁর দুটি অ্যাকাউন্ট থেকে বেশ মোটা অংকের টাকা লেনদেন হয়েছে। কোটক মহিন্দ্রা ব্যাংক এবং HDFC থেকেই মোটা অঙ্কের টাকা গিয়েছে রিয়া চক্রবর্তীর অ্যাকাউন্টে। সম্প্রতি মুম্বইয়ের প্রাইম লোকেশনে দুটি বাড়ি কিনেছেন চক্রবর্তী পরিবার। ওই বাড়ি সংক্রান্ত যাবতীয় কাগজ পত্র দেখতে চাওয়া হয়েছে ইডির তরফে।

সুশান্তের পাভানিতে একটি ছোট ফার্ম হাউস রয়েছে। এছাড়াও মুম্বইয়ের কাছে গোরেগাঁওতে একটি অ্যাপার্টমেন্ট আছে। এছাড়াও তাঁর দুটি দামি গাড়ি রয়েছে। যেগুলোর লোন তিনি এখনও দিচ্ছেন। রিয়া চক্রবর্তী এখন অভিযোগ করছেন সুশান্তের বাবা অযথাই তাঁকে হেনস্থা করছেন। তিনি আরও জানান, সুশান্তের সঙ্গে একবছর ধরে তিনি থাকছিলেন, জুন মাসে মাত্র কয়েকদিনের জন্যই তিনি অন্যত্র থাকতে শুরু করেন। কিন্তু তিনি ফ্ল্যাট ছেড়ে বেরিয়ে আসার ৬ দিনের মধ্যেই আত্মহত্যা করেন সুশান্ত।

গত ২৬ জুলাই সুশান্তের বাবা রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর পরিবারের পাঁচ সদস্যের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন। এরপরই সামনে আসতে থাকে একের পর এক তথ্য। বিহার পুলিশ অভিযোগ আগে মহারাষ্ট্র পুলিশের বিরুদ্ধেও। তাঁদের তদন্তে গলদ রয়েছে এবং তাঁরা সঠিক ভাবে জেরা করেননি এই অভিযোগও এসেছে। মহারাষ্ট্র পুলিশ প্রথম থেকেই সিবিআই এর বিপক্ষে ছিলেন। এখনও পর্যন্ত তাঁরা ৫৬ জনকে জেরা করেছেন। কিন্তু বহু তথ্য আড়াল করে গিয়েছেন। এমনকী জড়িয়েছে আদিত্য ঠাকরের নামও। যদিও ঠাকরের দাবি এগুলো রাজনৈতিক কুৎসা রটানোর জন্যই বলা হচ্ছে। সুশান্ত এবং রিয়া তাঁর খুবই ঘনিষ্ঠ।

গত কয়েক বছরে রিয়া চক্রবর্তীর বার্ষিক আয় ছিল ১০ লক্ষ টাকা এবং ১২ লক্ষ টাকা। পরে তা বেড়ে হয় ১৪ লক্ষ টাকা। এবং তাই দিয়েই তিনি কোটি কোটি মূল্যের দুটি সম্পত্তি পেলেন। কীভাবে পেলেন এত টাকা, তাই খতিয়ে দেখতে চায় ইডি।

আগে শোনা গিয়েছিল সুশান্তের সঙ্গে রিয়া যে কোম্পানি খুলেছিলেন সেখানে তৃতীয় অংশীদার হিসেবে ছিল তাঁর ভাইয়ের নাম। এখন দেখা যাচ্ছে রিয়ার বাবা ইন্দ্রজিৎ চক্রবর্তী সহ রিয়ার পরিবারের একাধিক জন রয়েছেন ওই কোম্পানির সঙ্গে। বৃহস্পতিবার রিয়ার চাটার্ড অ্যাকাউন্টট্যান্টকেও জেরা করা হয়। কিন্তু তার বক্তব্যে সন্তুষ্ট নয় ইডি।








Leave a reply