দাঁতের যত্নে কয়লা, ব্যবহারে রয়েছে স্বাস্থ্য ঝুঁকির সম্ভাবনা

|

পুরনো আমলের মানুষরা দাঁত পরিষ্কারের অব্যর্থ উপায় হিসাবে কয়লার ব্যবহার করতেন। এখনও অনেক সময় চারকোলসমৃদ্ধ টুথপেস্টের বিজ্ঞাপন দেখি আমরা। কিন্তু চিকিৎসাবিজ্ঞানীরা দাঁত সাদা করতে টুথপেস্ট কয়লা বা এমনিতে কয়লা ব্যবহারে স্বাস্থ্য ঝুঁকির কথা জানিয়েছেন।

অনেক টুথপেস্টে কয়লার মিশ্রণ ঘটিয়ে তাকে কালো করে ফেলা হয়। কিন্তু এটা দিয়ে দাঁত ব্রাশ করলে এনামেল ও দাঁতের ক্ষয় ঘটতে পারে। ইউটিউব ব্যবহারকারী মামা ন্যাচারাল একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। ভাইরাল হয়ে গেছে ভিডিওটি। ইতিমধ্যে ১.৫ মিলিয়ন মানুষ দেখে ফেলেছেন ভিডিওটি।

ভিডিওতে জেনেভি নামের ওই নারী কয়লার পেস্ট দিয়ে ৩-৫ মিনিট দাঁত ব্রাশ করেন। এতে দাঁত সাদা হয় বলে দাবি করেন তিনি। যেকোনো দোকানে এটি পাওয়া যায় বলেও জানান তিনি।

জেনেভি জানান, ময়লা শুষে নেওয়ার ক্ষেত্রে কয়লা অনন্য। হাসপাতালেও এর ব্যবহার চলে। কেউ বিষক্রিয়াল আক্রান্ত হলে কয়লার মাধ্যমে বিষ শুষে নেওয়া হয়। একই ঘটনা ঘটে দাঁতের ক্ষেত্রেও। কয়লা ব্যাকটেরিয়া, বিষাক্ত উপাদান এবং ময়লা দূর করে দাঁতকে সাদা করে।

কিছু মানুষ এটি ব্যবহার করে সত্যিকার অর্থেই সাদা দাঁত পেতে পারেন। কিন্তু দীর্ঘমেয়াদে এটি দাঁতের জন্য বরং ক্ষতিকর বলে জানান দন্ত চিকিৎসকরা। আমেরিকান ডেন্টাল অ্যাসোসিয়েশন দাঁত মাজার উপকরণ হিসাবে কয়লাকে অনুমোদন দেয় না।

কয়লা যে দাঁতের যত্ন নেয় সে বিষয়ে কোনো নিরেট গবেষণামূলক প্রমাণ নেই বলে জানান মিশিগানের ডেন্টিস্ট ড. সুসান ম্যাপলস। ওই ভিডিওতে নারী যা ব্যবহার করছেন তাতে দাঁতের ক্ষতি হতে পারে। আর দাঁত এমন একটা অংশ যা নিজের ক্ষত নিজে সারাতে পারে না। একবার ক্ষয় ঘটলে তা ঘটেই যায়। চুল বা নখ বা ত্বকের ক্ষত এমনিতেই সেরে যায়।

দাঁতের ভেতরের দিকের একটি অংশের নাম ডেন্টিন। এটি দাঁতের রং ধরে রাখে। এখন পর্যন্ত বিজ্ঞানীরা জানেন না যে, কয়লা এই অংশের যত্ন কিভাবে নেয়। বরং দাঁতকে বিবর্ণ করতে পারে। এনামেল হারালে দাঁত স্পর্শকাতর হয়ে যায়। প্রথম প্রথম দাঁতের সমস্যা বোঝা যাবে না। কিন্তু ক্রমেই ক্ষয়ে আসবে এনামেল।








Leave a reply